সর্বাধিক টিকা প্রদানকারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাকে পুরষ্কার দেবেন মসিক মেয়র

ময়মনসিংহ নগরীর প্রায় ২০ হাজার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে গণটিকা প্রদান

ময়মনসিংহ নগরীর প্রায় ২০ হাজার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে গণটিকা প্রদান
সর্বমোট পঠিত : 703 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

টিকা গ্রহণে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে সর্বাধিক টিকা প্রদানকারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সংযুক্ত কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত করার ঘোষণা দিয়েছেন মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। মেয়র টিটুর নির্দেশনায় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর গণের তত্ত্বাবধানে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ। টিকা কার্যক্রমকে সফল করতে সিটি কর্পোরেশনের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারিকে মনিটরিংয়ের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

সারাদেশের ন্যায় ২৫ বছর ও তদূর্ধ্ব জনগোষ্ঠী, নারী, শারীরিক প্রতিবন্ধী এবং দুর্গম ও প্রত্যন্ত এলাকার মানুষকে প্রাধান্য দিয়ে শনিবার (৭ আগস্ট) থেকে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড ভিত্তিক করোনার টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সিটি কর্পোরেশনের ৩৩টি ওয়ার্ডের ৩৩ টি কেন্দ্রে ৬০০ জন করে মোট ১৯ হাজার ৮০০ জনকে টিকা প্রদান করা হয়। প্রতিটি কেন্দ্রে নারী-পুরুষের লম্বা লাইন দেখা যায়। আগামী দুইদিন ৮ ও ৯ তারিখেও একই হারে কেন্দ্র সমূহে টিকা প্রদান করা হবে।

টিকা গ্রহণে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে সর্বাধিক টিকা প্রদানকারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সংযুক্ত কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত করার ঘোষণা দিয়েছেন মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। মেয়র টিটুর নির্দেশনায় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর গণের তত্ত্বাবধানে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ। টিকা কার্যক্রমকে সফল করতে সিটি কর্পোরেশনের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারিকে মনিটরিংয়ের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ নগরীর গণটিকা কার্যক্রমের বিভিন্ন বুথ পরিদর্শন করেন ময়মনসিংহ সিটিকর্পোরেশনের বিভিন্ন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ শফিকুর রেজা বিশ্বাস, মসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, পুলিশ সুপার মোহা. আহমার উজ্জামান, মসিক সচিব রাজীব কুমার সরকার, ময়মনসিংহ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন, ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম, বিভিন্ন দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ।

নগরীর ৩১নং ওয়ার্ডের চর ঈশ্বরদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গণটিকা গ্রহিতা আব্দুলকাদির (৯০) প্রতিক্রিয়ায় জানান, ‘বঙ্গবন্ধুর বেটি শেখহাসিনা আমাগর টিকা দেওনের ব্যবস্থা করছেন তাই আমরা বাড়ির কাছেই টিকা দিবার পারছি, আল্লাহ শেখর বেডিরে দীর্ঘায়ু করুন’।

গন্দ্রপা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩১নং ওয়ার্ডের গণটিকা কেন্দ্রে  অবসর প্রাপ্ত চাকরিজীবী আব্দুলগফুর (৮৫) টিকা গ্রহন শেষে প্রতিক্রিয়ায় জানান, কোনো সমস্যা ছাড়াই কেন্দ্রে এসে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটার আইডি কার্ড দেখিয়ে বুথে টিকা নিয়েছি। এতে কোনো সমস্যা হয়নি।


মন্তব্য

আরও দেখুন

জামালপুর লাইভ টিভি