অনলাইনে ভাইভায় ভয় জাবি শিক্ষার্থীদের

অনলাইনে ভাইভায় ভয় জাবি শিক্ষার্থীদের
সর্বমোট পঠিত : 44 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শ্রেণির শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত পরীক্ষা অনলাইনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১০ নম্বরের অ্যাসাইনমেন্ট, ১০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা ও ৩০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হবে। অনলাইনে পরীক্ষার বিষয়টি শিক্ষার্থীদের কাছে নতুন। এর সঙ্গে মৌখিক পরীক্ষার ৩০ নম্বর দুর্ভাবনায় ফেলেছে অনেককে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের ৪৯ ব্যাচের ছাত্র দেওয়ান আল ফাহাদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘পরীক্ষার নম্বরের সিংহভাগ রাখা হয়েছে ভাইভাতে (মৌখিক পরীক্ষা)। ভাইভাতে এত নম্বর দেখে ভয় পাচ্ছি। ৪০ মিনিটের ক্লাসে পাঁচ বার ইন্টারনেট যায়। অনলাইনে কীভাবে পরীক্ষা দেবো, সেটাও বুঝতে পারছি না।’ লোক প্রশাসন বিভাগের ৪৮ ব্যাচের ছাত্র জাফরুল ইবন শহিদ বলেন, ‘অনলাইনে পরীক্ষা আমাদের জন্য নতুন। সেশনজট কমাতে অনলাইন পরীক্ষা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। এ জন্য আমরা খুশি। ‘কিন্তু পরীক্ষার বেশিরভাগ নম্বর ভাইভাতে রাখা হয়েছে, যা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনকে ভাইভাতে নম্বর কমানোর বিষয়টি বিবেচনার অনুরোধ করছি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের ৪৭ ব্যাচের ছাত্রী পূজা মজুমদার বলেন, ‘অনলাইনে পরীক্ষা দিতে আমরা অভ্যস্ত নই। বিষয়টি শিক্ষকদের জন্যও নতুন। মৌখিক পরীক্ষায় এত নম্বর না রেখে অ্যাসাইনমেন্ট নম্বর বেশি রাখলে ভালো হতো আমাদের জন্য।’ এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক নুরুল আলম বলেন, ‘মৌখিক পরীক্ষার ৩০ নম্বর একসঙ্গে থাকবে না। তিন ভাগে ভাগে করে নম্বর দেয়া হবে। এখানে লিখিত পরীক্ষার বিষয়াবলী সম্পর্কিত প্রশ্নের ওপর পাঁচ, কোর্সের আউটকাম বা লার্নিং সম্পর্কিত প্রশ্নের ওপর পাঁচ এবং পুরো কোর্স নিয়ে ২০ নম্বর থাকবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘লিখিত পরীক্ষার মতো মৌখিকেও বিভাগের শিক্ষকের পাশাপাশি এক্সটার্নাল থাকবেন। দুইজনের দেয়া নম্বর গড় করে শিক্ষার্থীকে নম্বর দেয়া হবে। এ ক্ষেত্রে বৈষম্যের সুযোগ থাকবে না। ভাইভা ৩০ নম্বরেই হবে। তবে শিক্ষার্থীরা যাতে ভয় না পায়, সে জন্য শিক্ষার্থীবান্ধব আচরণ করার বিষয়ে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলে সুপারিশ করা হয়েছে। ‘অনলাইনে পরীক্ষার বিষয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের বুঝিয়ে দিতে আমরা একটু সময় নিচ্ছি। এ মাসের শেষ দিকেই আমরা পরীক্ষা শুরু করতে পারব বলে আশা রাখছি।’ অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশ অনুযায়ী, অনলাইনের পরীক্ষার ৫০ নম্বরের মধ্যে প্রাপ্ত নম্বরকে ১ দশমিক ৪ দিয়ে গুণ করে পূর্ণ কোর্সের মূল্যায়ন করা হবে।

হাফ কোর্সের ক্ষেত্রে প্রাপ্ত নম্বর ১ দশমিক ৪ দিয়ে গুণ করে তার অর্ধেক গণনা করা হবে। উপস্থিতির ওপর ১০ নম্বর এবং টিউটোরিয়ালের ওপর ১০ নম্বর থাকবে।

মন্তব্য

আরও দেখুন

জামালপুর লাইভ টিভি