অবশেষে সস্তি ফিরেছে কৃষকদের মাঝে, ভোলায় ন্যায্যমূল্যে সার বিক্রি শুরু

মোট দেখেছে : 105
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

আরাফাত হোসেন আলিফ, (ভোলা জেলা প্রতিনিধি) : ভোলার সাত উপজেলা ন্যায্যমূল্যে সার বিক্রি শুরু হওয়ায় অবশেষে সস্তি ফিরেছে সার ক্রেতাদের মাঝে। প্রশাসনের হস্তক্ষেপের ফলেই সার বাজারে এমন সস্তি ফিরেছে বলে দাবি খুচরা ক্রেতাদের।

ভোলা সদর উপজেলার ভেদুলিয়া ইউনিয়নের ব্যাংকের হাট এলাকার কৃষক মোঃ ফিরোজ, কামালসহ একাধিকরা জানান, শনিবার বিকেল থেকে ইউরিয়া ১৬ টাকা, টিএসপি ২২ টাকা, এমওপি ১৫ টাকা ও ডিএপি ১৬ টাকা কেজি দরে ক্রয় করতে পাচ্ছি। কিন্তু গত কয়েকদিন আগে ওই সারগুলো কেজি প্রতি ৫/১০ বেশি বিক্রি করা হতো। পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপের পর সারের বাজারে সস্তি ফিরেছে। এতে আমারা কৃষকরা অনেক খুশি।  বাংলাদেশ পার্টিলাইজার এ্যাসোসিয়েশন ভোলা শাখার সভাপতি সুলতান আহম্মেদ জানান, শনিবার বিকেল থেকে আমরা সকল ডিলাররা ন্যায্যমূল্যে সার বিক্রি করছি। এছাড়াও কেউ যাতে বেশি দামে সার বিক্রি না করে সেজন্য আমরা সবাইকে নির্দেশ দিয়েছি।  ভোলা জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ন্যায্যমূল্যের চেয়ে বেশি দামে সার বিক্রির দায়ে গত ২/৩ দিনে ভোলা সদর, বোরহানউদ্দিন, তজুমদ্দিন ও চরফ্যাশন উপজেলায় অভিযান চালিয়ে ১২ জন ব্যবসায়ীর ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিক জানান, শনিবার দুপুরে আমরা সার ডিলার, কৃষি কর্মকর্তা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নিয়ে এক জরুরী বৈঠকে ডিলারদের ন্যায্যমূল্যে সার বিক্রি করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। প্রতিটি সার বিক্রেতা তাদের প্রতিষ্ঠানে সারের মূল্যের তালিকা টানিয়ে রাখা ও ক্রেতাকে অবশ্যই ক্রয়ের রশিদ দিতে বলা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, যদি কেউ নির্দেশ অমান্য করে ন্যায্যমূল্যের চেয়ে বেশি দামে কেউ সার বিক্রি করলে জেল-জরিমান প্রদান করা হবে। এবং তার ডিলার সিপও বাতিল করা হবে।

আরো দেখুন

সাম্প্রতিক ভিডিওগুলি