জামালপুরে যমুনার পানি বিপৎসীমার উপরে, বিলীন হচ্ছে বসত ভিটা

পলবান্ধা ইউনিয়নের সিরাজাবাদ নতুন পাড়া এলাকা থেকে তোলা।
সর্বমোট পঠিত : 980 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মোরশেদ ভাঙনের বিষয়ে জানান,' সিরাজাবাদ নতুন পাড়া এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনের বিষয়টি আমি জানি না আপনার মাধ্যমেই জানতে পারলাম।'

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও কয়েক দিন ধরে চলা ভারী বর্ষণে জামালপুরের নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে যমুনার পানি ১২ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ১৩ সেন্টিমিটার পর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

রোববার(২৯ আগস্ট) বিকালে জামালপুর লাইভ ডটকমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পউবো)’র জামালপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবু সাঈদ এবং পানি মাপক গেজ পাঠক আব্দুল মান্নান।

এতে করে ইসলামপুর উপজেলার কুলকান্দি,চিনাডুলি, নোয়ারপাড়া,বেলাগাছা ও পলবান্ধা ইউনিয়ন এবং দেওয়ানগঞ্জ, বকশিগঞ্জ, মেলান্দহ উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকায় প্লাবিত হয়ে কয়েক হাজারও মানুষ পানি বন্দি পড়েছে।



এদিকে পানি বৃদ্ধির ফলে ইসলামপুর উপজেলায় পলবান্ধা ইউনিয়নের  ব্রহ্মপুত্র নদে তীব্র ভাঙন দেখা দিয়েছে। ফলে বিলীন হচ্ছে বসতবাড়ি, ফসলি জমি ও স্থাপনা। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছে কয়েকশ পরিবার। ভাঙনে গৃহহীন ও ভূমিহীন হয়ে পড়েছেন অনেকেই।

বোরবার বিকালে পলবান্ধা ইউনিয়নের সিরাজাবাদ নতুন পাড়া এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার থেকে ব্রহ্মপুত্র নদে পানির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ভাঙন। এরই মধ্যে ২০টি পরিবারের বসতবাড়ি ও কয়েকশ একর ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। অনেকেই ঘরবাড়ি অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছেন।



উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মোরশেদ ভাঙনের বিষয়ে জানান,' সিরাজাবাদ নতুন পাড়া এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনের বিষয়টি আমি জানি না আপনার মাধ্যমেই জানতে পারলাম।'

এস আর / জামালপুর লাইভ

মন্তব্য

আরও দেখুন

জামালপুর লাইভ টিভি